LoRa -Long Range লোরা

LoRa (Long Range) লোরা। এটি বর্তমানে খুবই জনপ্রিয় সিস্টেম বা নেটয়ার্ক প্রযুক্তি। স্বল্প শক্তি ব্যবহার করে অধিক বা প্রশস্ত এলাকায় তথ্য বা ডাটা আদান প্রদান কেই সাধারন ভাবে লোরা LoRa বলে । লোরা LoRa সিস্টেম নিয়ে প্রথম ধারনা এসেছে ফ্রান্স থেকে। লোরা লাইসেন্স ফ্রি  গিগাহার্টজ রেডিও ফ্রিকোয়েন্সি ব্যান্ডগুলি যেমন 433 মেগাহার্টজ, 868 মেগাহার্টজ (ইউরোপ), 915 মেগাহার্টজ (অস্ট্রেলিয়া এবং উত্তর আমেরিকা) এবং 923 মেগাহার্টজ (এশিয়া) ব্যবহার করে। সহজ কথায় অল্প পরিমান ডাটা দীর্ঘ/প্রশস্ত এলাকায় প্রেরন ও গ্রহন পদ্ধতিই লোরা সিস্টেম। তবে এটির দিন দিন আধুনিক হচ্ছে। সাধারনত লোরা নেটওয়ার্ক টেলিকমিনিকেশন টাওয়ার ব্যবহার করে ডাটা আদান প্রদান করে তাই এটিকে লোরাওয়ানও (LoRaWAN) বলে। আমাদের দেশে কিছু কিছু প্রি-পেইড মিটার এই পদ্ধতি ব্যবহার করে, এছাড়াও পার্কিং সিস্টেম ইত্যাদি ক্ষেত্রে এই প্রযুক্তি দেখা যায়।   

LoRa -Long Range লোরা

কি ভাবে এটি কাজ করে?

End points: ডাটা আদান প্রদানের জন্য দুইটি প্রান্ত থাকতে হবে।

LoRa Gateway : এই সিস্টেমে যে ডিভাইস গুলো যুক্ত থাকবে তা কোন না কোন গেট ওয়ে ব্যবহার করতে হবে, যাতে করে প্রতিটি  ডিভাইসের মধ্যে (End point to End Point) ডাটা আদান প্রদান করা যায়। এটি সাধারনত ইথারনেট অথবা ওয়ারলেস হতে পারে।  

LoRa Network Server: যে সার্ভার থেকে এটি পরিচালনা করা হবে।

Remote Computer:  যে সিস্টেম বা কম্পিউটার থেকে এটির ডাটা পাওয়া যাবে।  

আরো জানতে